আগৈলঝাড়ায় কুচিয়া চাষ প্রদর্শনী প্রকল্পে আশার আলো

0
455

অপূর্ব লাল সরকার :বাংলাদেশের নির্বাচিত এলাকায় কুচিয়া ও কাকড়া চাষ গবেষণা প্রকল্পের আওতায় বরিশালের আগৈলঝাড়া মৎস্য অধিদপ্তরের পরিচালনায় কুচিয়া চাষ প্রদর্শনী প্রকল্পে আশার আলো দেখা দিয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে উপজেলার ৩টি প্রদর্শনী খামারে একোয়া কালচার পদ্ধতিতে চাষ শুরু হয়। সরেজমিনে উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের দক্ষিণ শিহিপাশা গ্রামের মিন্টু চন্দ্র দাসের কুচিয়া চাষ প্রদর্শনী খামারে গিয়ে দেখা যায়- খামারের ভিতরে ছোট বড় গর্ত। চাষী মিন্টু জানান, এই গর্তের মধ্যেই লুকিয়ে আছে কুচিয়া। এছাড়া খামারের ভিতরে কচুরিপানার মধ্যে কুচিয়া মাছের ছোট ছোট বাচ্ছা কিলবিল করতে দেখা যায়। বাকাল ইউনিয়নের বড়মগড়া গ্রামের লিটন মধুর খামারে প্রচন্ড খরতাপে কিছু কুচিয়া মারা গেলেও সম্প্রতি বৃষ্টি হওয়ায়
কুচিয়া বাচ্চা দিতে শুরু করেছে। একইভাবে বাগধা ইউনিয়নের জোবারপাড় গ্রামের মনিশংকরের খামারেও কুচিয়ার বাচ্চা
দিয়েছে। উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা রোজিনা আক্তারসহ তার সহকর্মীরা প্রায় সময় সরেজমিন কুচিয়ার খামার পরিদর্শনে
গিয়ে দেখভাল করছেন। রোজিনা আক্তার জানান, চাষীদের মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি করে আরও খামার বাড়াতে পারলে প্রাকৃতিকভাবে
আহরণ করা কুচিয়ার সাথে প্রকল্পে চাষ করা কুচিয়া রফতানি করে বেশি সফলতা পাওয়া যাবে। উল্লেখ্য- চীন, জাপান, থাইল্যান্ড,
কোরিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কুচিয়া মাছ রফতানির কাজে নিয়োজিত শত শত শ্রমিক আগৈলঝাড়া ও পার্শ্ববর্তী উপজেলার
বাসিন্দা। দীর্ঘদিন যাবৎ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কুচিয়া মাছ আহরণ, চাষ এবং রফতানি কাজে নিয়োজিত থেকে ভাগ্যের
পরিবর্তন এনেছে তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here