মাদারীপুরে প্রস্তাবিত তাতপল্লীর: ক্ষতিপূরণের তালিকা প্রস্তুত

0
49

মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরের কুতুবপুরের ৬০ একর ও শরিয়তপুরের নাওডোবার ৬০ একর জমি অধিগ্রহণের পর সরকার করতে যাচ্ছে শেখ হাসিনা তাঁতপল্লী। এই তাঁতপল্লী নির্মানের প্রস্তাবিত খালি জমির ওপর ক্ষতিপূরণের তালিকা স্বচ্ছতার সাথে প্রস্তুত করে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের সূত্র জানায়, চলতি বছরের শুরুতে এই তাঁতপল্লী নির্মানের প্রস্তাবিত খালি জমির উপর শত শত গাছ-পালা রোপণ ও নতুন ঘরবাড়ি তুলে সরকারের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার পায়তারা করে স্থানীয়রা। বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রশাসনের নজরে এলে ওই সব স্থাপনা ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। পরে শিবচর উপজেলার কুতুবপুর ৯২ নং দাগে ১টি মৌজায় শেখ হাসিনা তাঁতপল্লী নির্মাণের প্রথম ধাপে ২২টি পরিবারের নাম ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরি করেন জেলা প্রশাসনের এলএ শাখার সার্ভেয়ার সোহেল মিয়াজী ও মোস্তাফিজুর রহমান। পরে স্বচ্ছতার সাথে এই পরিবারগুলোর বিভিন্ন স্থাপনা বাবদ ৩ কোটি ৫ লাখ ৮৪ হাজার ৯৮০ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রস্তাব করেন গণপূর্ত বিভাগ। পরবর্তীতে আরো ৫টি পরিবারকে এলএ শাখা থেকে ওই কর্মকর্তারা এই তালিকায় যোগ করেন। ইতিমধ্যে এসব পরিবারকে ৭ ধারা দিয়েছে ভুমি অধিগ্রহণ শাখা। পরবর্তীতে ৮ ধারা প্রদান করলে ওইসব পরিবারগুলো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখিয়ে এই ক্ষতিপূরনের পুরোটাকা উত্তোলন করতে পারবেন জেলা প্রশাসনের ভুমি অধিগ্রহন (এলএ) শাখা থেকে। জানতে চাইলে গণপূর্ত বিভাগ মাদারীপুর কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সালেহ মুহাম্মদ ফিরোজ বলেন, ‘তালিকা জেলা প্রশাসন থেকে প্রস্তুত করে আমাদের অফিসিয়ালি পাঠায়। পরে আমরা সরেজমিনে গিয়ে বিস্তারিত জেনে চূড়ান্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিল প্রস্তাব করি। গণপূর্ত বিভাগ যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে প্রতিটি কাজ করেছে। মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম জানান, ‘স্বচ্ছতার সাথে ক্ষতিপূরণ আইন মেনে জেলা প্রশাসন ও গণপূর্ত বিভাগ যৌথ তদন্ত করে ক্ষতিপূরনের বিল দেয়ার প্রস্তাব করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here