পোরশায় চাঁদাবাজি করতে এসে ধরা খেল দুই সাংবাদিক

0
28

সালাউদ্দীন আহম্মেদ, পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর পোরশায় চাঁদাবাজি করতে এসে  চাঁদার ৩০ হাজার টাকা সহ ধরা খেল দু’জন সাংবাদিক।

বুধবার বিকালে উপজেলার ছাওড় ইউনিয়নের কুশুমকুন্ডা গ্রামের পাশে এক স্কেবেটর (মাটি খনন যন্ত্র) চালকের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করার সময় স্থানীয় লোকজন তাদের ধাওয়া করে আটক করে।

একই সাথে তাদের সাথে থাকা একটি  কার গাড়ি (যাহার নং-ঢাকা মেট্রো-গ-২২-৩১২৩) আটক করে রাখা হয়।

এসময় সাংবাদিক ও স্থানীয় জনগনের মধ্যে বহু   তর্ক বিতর্কের পরে  সন্ধ্যার কিছুক্ষন পূর্বে স্থানীয় জনতা আটককৃতদের পোরশা থানা পুলিশে সোপর্দ  করে এবং তাদের ব্যবহৃত কার গাড়িটি ছাওড় ইউনিয়ন পরিষদের জিম্মায় রাখা হয়।

এঘটনায় চাঁদাবাজির ৩০হাজার টাকা সহ দুই সাংবাদিককে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনগণ।

আটককৃত সাংবাদিক দু’জন হলেন রাজশাহী থেকে প্রকাশিত একটি দৈনিক উপাচার পত্রিকার সহকারী নির্বাহী সম্পাদক ও বোয়ালিয়া থানার বালিয়াপুকুর এলাকার জিন্নাত আলীর ছেলে মাসুদ রানা (৪০) এবং অপরজন একই পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ও দূর্গাপুর থানার বকতিয়ারপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে রবিউল ইসলাম(৩০)।

আটক সাংবাদিকদের বিষয়ে ছাওড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফখরুদ্দিন আলী আহম্মেদ জানান, আটক দু’জন নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে পুকুর খনন করার জন্য পত্রিকায় খবর প্রকাশ সহ বিভিন্ন ভয়ভিতি দেখিয়ে স্কেবেটর চালক কামরুজ্জামানের কাছ থেকে দুই বারে ৩০হাজার টাকা চাঁদা আদায় করেন।

এর পর বিষয়টি ওই স্কেবেটার মেশীন চালক বুঝতে পেরে স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে তাদের পিছু ধাওয়া করে এবং একটি সাদা রঙ্গের কারগাড়ি সহ কুশারপাড়া মোড়ে এসে তাদের আটক করেন। এর পর সন্ধ্যার দিকে তাদেরকে পোরশা থানা পুলিশে সোপর্দ করেন বলে জানান তিনি।

পোরশা থানা অফিসার ইনচার্জ শাহিনুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং আটক সাংবাদিক মাসুদ রানা ও রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় চাঁদাবাজির নিয়মিত মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে। পরদিন বৃহস্পতিবার তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে