গৌরনদীতে ইতালী প্রবাসী মিজানুর রহমান মুন্সির উদ্যোগে ১কিঃ মিঃ.রাস্তা সংস্কার

0
106
ইতালী প্রবাসী মিজানুর রহমান মুন্সির উদ্যোগে ১কিঃ মিঃ.রাস্তা সংস্কার

নিজস্ব প্রতিনিধি।। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে বারবার ধরনা দিয়েও কাজ না হওয়ায় এবার নিজেদের টাকায় রাস্তা নির্মাণ করল বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বার্থী ইউনিয়নের বড়দুলালীর গ্রামের কৃতি সন্তান ইতালী প্রবাসী মিজানুর রহমান মুন্সি ও গ্রামবাসী। আশপাশের গ্রামগুলো থেকে শিক্ষাদীক্ষা ও সম্পদে এগিয়ে থাকা বড়দুলালী গ্রামে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি আলিম মাদরাসা রয়েছে। গ্রামটি থেকে তিন কিলোমিটার দূরে রয়েছসা বরিশাল-ঢাকা মহা সড়ক। মাত্র এক কিলোমিটার সংযোগ সড়ক  কাচা থাকায়,ওই গ্রামবাসীকে প্রধান সড়কে উঠতে হতো অনেকটা কষ্টকরে।

বরিশাল মহাসড়কের বার্থীবাজার এর দক্ষিন পাশ থেকে নদীর পার এসে সরদার বাড়ীর ভেলি ব্রিজ হয়ে টরকি চলে গিয়েছে। আরেকটা রাস্তা বরিশাল মহা সড়ক থেকে বার্থী কালি বাড়ির উত্তার পাশ দিয়ে বাঘমারা  উপরদিয়ে কমলাপুর,খাঞ্জাপুর হয়ে পাংগাইসা কালকিনির সাথে সংযুক্ত হয়েছে।
কালকিনি, পাংগাইসা খাঞ্জাপুর কমলাপুরের জনগন টরকি বন্দরে যাতায়াতে প্রতিদিন এই ভেলি টু ভেলি এক কিলোমিটার রাস্তা ব্যাবহার করতে হয়। ঠিক একই ভাবে দক্ষিন অঞ্চলের লোকের ও একই ভাবেএই রাস্তা ব্যাবহার করতে হয়।
এই এক কিলোমিটার রাস্তা মেরামত এবং এলাকা বাসির প্রানের দাবি হলেও স্থানিয় কর্তিপক্ষের (অদৃশ্য কারনে) দৃষ্টির আরালে থেকে যায়।আর এতে করে এই রাস্তা সাধারন জনগনের গনদুর্ভোগের কারন হয়ে দারায়। জরুরী রোগি এম্বুলেন্স ফায়্যার সার্ভিস পুলিশি সহয়েতা এবং সেবা দানেও এই কানা খন্দক রাস্তা বাধা হয়ে দারায়।
স্কুল কলেজ মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রিএবং জনগনের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে এবং কতৃপক্ষের সহয়তা না পেয়ে ইতালী প্রবাসী সমাজ কর্মি মিজানুর রহমান মুন্সি ব্যাক্তিগত উদ্যেগ ও অর্থনৈতিক অনুদান এবং “রাইচ গৌরনদী” নামে সমাজ কল্যান থেকে অর্থনৈতিক সহযোগিতা নিয়ে ও বেলজিয়াম প্রবাসী বড়দুলালীর কৃতি সন্তান আনোয়ার সরদারের আর্থিক অনুদানে এই এক কিলোমিটার রাস্তায় ইট বসানোর উদ্ভোদন করেন।
এতে স্থানিয় জনগন শতস্ফুর্ত ভাবে সারা দিয়ে ইতালী প্রবাসী বড়দুলালীর কৃতিসন্তান মিজানুর রহমান মুন্সির পাশে থেকে সর্বাত্তক সহোযোগিতার আস্বাস দেন।
এই রাস্তা বার্থী ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে হওয়াতে ইউনিয়ন চেয়াহুরম্যান শাজাহান প্যাদা জনাব মিজানুর রহমান মুন্সিকে উতসাহিত করেন এবং তার পাশে থেকে বাকি কাজ পরিষদের আর্থিক সহয়তায় সমাপ্ত করে দেয়ার জন্য প্রতিশ্রুতি দেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে