শিবচরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ৬

0
0

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বহেরাতলা উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে এক নারীসহ ৬ জন আহত হয়েছে। এসময় নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুরসহ বাড়িতে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।শুক্রবার (২ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে ইউনিয়নের সোতারপাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ইদ্রিস আকন (৫০), লিখন আকন (২৩), মাহমুদা (৪২), ইমন (২৫), জাবেদ (৩০) ও রহমান (১৯)। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তবে এর মধ্য মাহমুদার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আহত ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে ইউনিয়নের সোতারপাড় এলাকার আলমাছ শিকদার নামে এক ব্যক্তি সোতারপাড় বাসস্ট্যান্ডে তার একটি দোকান নিজের সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির হোসেন হায়দারকে নির্বাচনী ক্যাম্প করার জন্য ভাড়া দেন। এঘটনাকে কেন্দ্র করে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ নুরুল হক শিকদারের সাথে আলমাছ শিকদারের কয়েকদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। এঘটনায় আজ রাতে নুরুল হক শিকদারের সমর্থক আজিজুল শিকদার, শাওন শিকদার, আওলাদ শিকদারসহ ১০/১২ জন মিলে নির্বাচনী ক্যাম্প ও বাড়িতে হামলা করে। এসময় ৬ জন আহত হয়। আহতদের উদ্বার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এসময় একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। এসময় নির্বাচনী ক্যাম্প ও বাড়িতে হামলারও অভিযোগ পাওয়া গেছে।পরে শিবচর থানার ওসি মোঃ মিরাজ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ সৌমিত্র রায় বলেন, রাত দশটার দিকে রোগীরা আহত অবস্থায় হাসপাতালে আসে। এদের মধ্য একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি সবাই এখানে ভর্তি রয়েছেন।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজ হোসেন বলেন, আমরা ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছি। এবিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এই বিভাগের আরও খবর….

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে